নিয়মিত শরীর চর্চা করুন এবং ভালো থাকুন

নিয়মিত শরীর চর্চা করুন এবং ভালো থাকুন

বেঁচে থাকার সবচেয়ে বেশি আনন্দ থাকে শরীর এবং মন সুস্থ থাকলে। চোরেরও মন সুস্থ না থাকে তবে আনন্দের মুহূর্তগুলো অনেক সময় নিরানন্দ হয়ে যায়। আর তাই জীবন যাপনে একটু হিসেবে হলে এবং কয়েকটি কৌশল অবলম্বন করলে আমাদের শরীর ও মন থাকবে সুস্থ এবং সুন্দর।

আর তাই শরীরে ওজন কমানো এবং শরীরের সুস্থতা বজায় রাখা এবং প্রতিদিনের কর্ম তৎপরতা তৎপরতা বাড়ানোর জন্য ব্যায়াম খুবই উপকারী। তবে ব্যায়াম করার পূর্বে কিছু ভুল আমাদের শরীরচর্চার উপকারিতার না করে অপকারিতা সৃষ্টি করতে পারে।

শরীর সুস্থ রাখতে হলে নিয়মিতভাবে শরীরচর্চা করতেই হবে তা কিন্তু আগেই প্রমাণিত হয়েছে। নিয়মিতভাবে শরীরচর্চা করলে মন ভালো থাকে সেইসঙ্গে শরীরের প্রয়োজনের সব হরমোনও কিন্তু সঠিকভাবে কাজ করে থাকে।

শারীরিক বা মানসিক কোন সমস্যা যদি আপনার থাকে তাহলে যত পরিপাটি বা যত ভালই থাকুক না কেন আপনাকে খুব একটা সুন্দর দেখা যাবে না। যার মনে আছে প্রশান্তি শরীরে নেই কোন ব্যাধি কিন্তু তেমন কোনো সাজগোজ না করে সাদামাটা চেহারাতেও সুন্দর দেখায়। শরীরচর্চার নানা দিক এমনভাবে সৌন্দর্যের সাথে গাধা যে একে অপরকে বাদ দিলে সৌন্দর্য চর্চায় যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়।

বিশেষজ্ঞদের মতে প্রতিদিন নিয়ম মেনে যদি ৩০ মিনিট করে শরীর চর্চা করা হয় তাহলে বিষন্নতা থেকে দূরে থাকা যায়। এবং কি এক গবেষণায় দেখা গেছে যে যারা নিয়মিতভাবে ৩০ মিনিট শরীর চর্চা করেন তাদের জীবন থেকে বিষন্নতা ৭৫ মিনিট কমে যায়। আর এই গবেষণার জন্য প্রাপ্তবয়স্ক ত্রিশ জন মানুষকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। যারা প্রত্যেকেই ডিপ্রেশনে ভুগতেছিলেন।

নিয়মিত শরীর চর্চা করুন এবং ভালো থাকুন
নিয়মিত শরীর চর্চা করুন এবং ভালো থাকুন

শরীর চর্চা হল শারীরিক পরিশ্রমের মাধ্যমে শরীরের সুস্থতা বজায় রাখার একটি প্রক্রিয়া। নিয়মিত শরীর চর্চা করলে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। এছাড়াও, শরীর চর্চা মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতিেও সহায়তা করে।

বয়স বাড়ার সাথে সাথে শারীরিক অসুস্থতার ঝুঁকে ফিরে যায়। সবার ওই তাই চলিচর্জার প্রতি মনোযোগী হওয়া প্রয়োজন হয়ে পড়ে। স্বাস্থ্যসম্মতভাবে নিয়মিত শরীরচর্চায় ফুসফোস হৃদপিণ্ড পরিপাকতন্ত্র পেশী রক্তনালী এবং হাড় সুস্থ থাকে। আপনার শরীর উপাদান গুলো ভালোভাবে শরীরের জন্য সঠিক পুষ্টির যোগান দিয়ে থাকে। এর ফলে রক্তশূন্যতার ঝুঁকি পুষ্টিহীনতা এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দাও কমে যায়। এমন কি বার্ধক্য জনিত কারণে ও ব্যথা বেদনাও কমে আসে।

নিয়মিত শরীর চর্চার উপকারিতা

  • ডায়াবেটিস, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, অস্টিওপোরোসিস ইত্যাদি রোগের ঝুঁকি কমায়।
  • ওজন কমাতে সাহায্য করে।
  • শরীরের শারীরিক ও মানসিক উৎকর্ষতা বৃদ্ধি করে।
  • হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।
  • স্বাস্থ্যকর ও সুখী জীবনযাপন করতে সাহায্য করে।
  • মানসিক চাপ কমায়, উদ্বেগ ও হতাশা দূর করে।

নিয়মিত শরীর চর্চার প্রকার

প্রতিদিন শরীর চর্চার জন্য কোন নির্দিষ্ট ধরন নেই। তবে, কিছু কিছু সুরের চর্চার রয়েছে যা সব বয়সের মানুষের জন্য উপকারী। এর মধ্যে রয়েছে হাঁটা, দৌড়ানো, সাইকেল চালানো, সাঁতার কাটা, যোগব্যায়াম, ওজন উত্তোলন প্রভৃতি।

নিয়মিত শরীর চর্চার শুরু করা

আপনি যদি দীর্ঘদিন ধরে কোনও ব্যায়াম না করেন তবে নিয়মিত শরীর চর্চা শুরু করার আগে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এছাড়াও, শুরুতে খুব বেশি ব্যায়াম করা উচিত নয়। ধীরে ধীরে ব্যায়ামের সময় ও মাত্রা বাড়ানো উচিত।

নিয়মিত শরীর চর্চার সময় ও মাত্রা

প্রতিদিন শরীর চর্চার জন্য সপ্তাহে কমপক্ষে ১৫০ মিনিটের মধ্যম তীব্রতার ব্যায়াম বা ৭৫ মিনিটের উচ্চ তীব্রতার ব্যায়াম করা উচিত। এছাড়াও, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট হাঁটা বা অন্যান্য হালকা ব্যায়াম করা যেতে পারে।

নিয়মিত শরীর চর্চার জন্য কিছু টিপস

  • ব্যায়াম করার আগে হালকা ব্যায়াম দিয়ে শুরু করুন এবং পরে ধীরে ধীরে ব্যায়ামের তীব্রতা বাড়ান।
  • ব্যায়াম করার সময় প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন।
  • আপনার জন্য উপযুক্ত ব্যায়াম নির্বাচন করুন।
  • ব্যায়াম করার পরে শরীরকে বিশ্রাম দিন।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করার একটি সময়সূচী তৈরি করুন এবং তা অনুসরণ করুন।

অবশ্য এর সাথে সাথে গবেষকরা এটাও বলেছেন যে একমাত্র ডাক্তারের পরামর্শ মেনেই ঔষধ গ্রহণ এবং ব্যায়াম করা উচিত। আর তাই চিকিৎসককে জিজ্ঞাসা বা না জানিয়ে ওষুধ বন্ধ না করা একেবারেই উচিত নয় বলে পরামর্শ দিয়েছেন।

নিয়মিত শরীর চর্চা হল সুস্থ জীবনযাপনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। নিয়মিত শরীর চর্চা করলে আপনি সুস্থ, সুখী ও দীর্ঘজীবী হতে পারবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top