মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ ও দূর করার উপায়

মুখে বাজে গন্ধ বা দুর্গন্ধ অনেকেরই হয়ে থাকে। এমন সমস্যায় আমাদের মুখে দুর্গন্ধ থাকার কারণে লজ্জাজনক এবং বিব্রতকর মনে হয়। আমরা অনেকেই সমস্যায় ভুগলেও জানিনা কেন এই সমস্যা হয় অথবা কি ভাবেই বা এর সমাধান করা যাবে। আমাদের প্রিয় যেনও আমাদের কাছ থেকে দূরে সরে যেতে পারেন। এ সমস্যার সমাধান খুব সহজ জীবনযাত্রার কিছু পরিবর্তনের মাধ্যমে এই সমস্যা থেকে পরিত্রান পাওয়া যায়। আর এর পেছনে যদি কোন অন্য কোন কারণ থেকে থাকে তাহলে সেটির চিকিৎসাও প্রয়োজন। সঠিক পদ্ধতিতে মুখ এবং দাঁতের পরিচর্যা না করলে মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে। আবার মুখ ঘরের কোন অসুস্থতার কারণেও এমন মুখের দুর্গন্ধ হয়ে থাকে। সাধারণত দাঁতের গোড়া দাঁত মাড়ি জিহবা মুখ ঘরে কোন রকম সংক্রমণ হলে মুখের দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।

মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ ও দূর করার উপায়
মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ ও দূর করার উপায়

মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ

  • সঠিক পদ্ধতিতে মুখের পরিচর্যা না নিলে।
  • প্রতিবার খাবারের পর মুখের ভেতরে খাদ্য আবরণ দাতের ফাঁকে বা মারি ভেতরে জমে থাকে যা দাঁতের সৃষ্টি করে থাকে। এরপর তা থেকে দাঁতের মাড়ির প্রদাহ দেখা দেয়। এর ফলে মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়ে থাকে।
  • দীর্ঘমেয়াদী সাইনাসের সংক্রমনের কারণেও মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।
  • মুখে বা দাঁতের মাড়িতে কোন ধরনের ক্ষত বা ঘার সৃষ্টি হলে মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।
  • নিয়মিত পর্যাপ্ত পানি পান না করলে।
  • শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণের কারণে মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকতে পারে।
  • দাঁত আঁকা বাঁকা থাকার কারণে খাওয়ার সময় খাদ্য কণা এবং জীবাণু ঢুকে থাকে এর কারণেও অনেক সময় মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।
  • শরীরে সাধারণ রোগের কারণেও মুখের ভেতরের ছত্রাক এবং ফাঙ্গাস জাতীয় ঘা থাকলে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে।
  • অনেক সময় বদহজমের কারণেও মুখের দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।
  • মুখের ক্যান্সারের কারণেও দুর্গন্ধ হতে পারে।
  • যে সকল খাবার পাননি শূন্যতা সৃষ্টি করে সেই সকল খাবার বেশি করে খেলে।
  • গলার পেছনের অংশে কফ জমা থেকেও মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে।
  • দীর্ঘ সময় ধরে না খেয়ে থাকলে বা কিছু না পান করলে।
  • মুখ দিয়ে শ্বাস নেওয়ার অভ্যাসগত সমস্যা থাকার কারণেও অনেক সময় মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে।

মুখের দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার উপায়

  • যাদের মুখ বেশি শুষ্ক তারা মুখের দুর্গন্ধের সমস্যায় বেশি বুকে থাকেন। আর তাই প্রতিদিন নিয়মিত ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করতে হবে।
  • শাকসবজি ফলমূল বেশি করে খাবার খাওয়া উচিত।
  • চিনি বিহীন চুইংগাম মুখে রেখে চিপাতে পারেন।
  • কমলা, জাম্বুরা, লেবু, কামরাঙ্গা, আনারস, এবং ভিটামিন সি জাতীয় খাবার খেতে হবে।
  • দাঁত পরিষ্কারের পাশাপাশি জিহ্বাও পরিষ্কার রাখতে হবে। অনেক সময় জিহ্বার কারনেও মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকতে পারে।
  • দাঁত এবং মুখ সঠিকভাবে পরিচর্যা করতে হবে।
  • মুখ শুকনা মনে হলেই একগ্লাস পানি পান করতে পারেন যাতে আপনার মুখটা ভেজা থাকে।
  • নাক দিয়ে নিশ্বাস নেওয়ার অভ্যাস করতে হবে।
  • পেটের পিরা, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, লিভারের সমস্যা, টনসিলের সমস্যা এই সকল রোগের চিকিৎসা করতে হবে।
  • ধূমপান পরিত্যাগ করতে হবে।
  • দিনে একবার ফ্লস ব্যবহার করে দাঁতের ফাঁক থেকে খাবারের কণা এবং ব্যাকটেরিয়া অপসারণ করুন।
  • মুখের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য মুখের ভেতরে একটি লবঙ্গ বা এলাচের ডানা রেখে চিবাতে পারেন।
  • তৈলাকত খাবার, ভাজাপোড়া এবং মিষ্টি জাতীয় খাবার কম খাওয়ার চেষ্টা করতে হবে।
  • জিহ্বা পরিষ্কারকারী ব্যবহার করে জিহ্বার উপরিতল থেকে ব্যাকটেরিয়া অপসারণ করুন।
  • প্রতিবার খাবারের পর দাঁত ব্রাশ করে মুখ পরিষ্কার রাখতে হবে।
  • রাতে ঘুমানোর পূর্বে মাত্র ব্যবহারের অভ্যাস করতে হবে।
  • পান সিগারেট জর্দা সুপারি গুল এবং অ্যালকোহল জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকুন।
  • নিয়মিত দাঁতের চিকিৎসার সাথে পরামর্শ করেন।
মুখের দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার ঘরোয়া সমাধান
মুখের দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার ঘরোয়া সমাধান

মুখের দুর্গন্ধ থেকে বাঁচার ঘরোয়া সমাধান 

  • লবঙ্গ মুখের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। খাবার খাওয়ার পর এক টুকরো লবঙ্গ মুখে রেখে চিবিয়ে খান।
  • বেকিং সোডা মুখের অ্যাসিড নিরপেক্ষ করতে সাহায্য করে। এক চা চামচ বেকিং সোডা দিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন।
  • নারকেল তেল মুখের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। এক টেবিল চামচ নারকেল তেল দিয়ে ৫ মিনিট কুলি করুন।
  • লবণ-পানি দিয়ে গার্গল করলে মুখের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। এক গ্লাস গরম পানিতে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে গার্গল করুন।
  • তুলসী মুখের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে সাহায্য করে। তুলসী পাতা চিবিয়ে খান বা তুলসী চা পান করুন।
  • অ্যালোভেরা জেল মুখের আলসার ও জ্বালাপোড়া কমাবে।

মুখের দুর্গন্ধ একটি সাধারণ সমস্যা, তবে এটি গুরুতর চিকিৎসা সংক্রান্ত সমস্যার লক্ষণও হতে পারে। যদি আপনার মুখের দুর্গন্ধ দীর্ঘস্থায়ী হয়, তবে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top