যেভাবে বুঝবেন ভিটামিন বি১২ এর অভাব

আমাদের দেহের সুষম খাদ্যাভাসে দেহের জন্য ছয়টি উপাদান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তার মধ্যে একটি হলো ভিটামিন। আমাদের শরীরের সুস্থতার জন্য ভিটামিন বি ১২ এর গুরুত্বপূর্ণ অপরিসীম। ভিটামিন বি ১২ আমাদের দেহে উৎপন্ন হতে পারে না। বিভিন্ন প্রকার খাবারের মাধ্যমে এটি আমাদের গ্রহণ করতে হয়। ভিটামিন বি১২ এর অভাব পূরণ করতে হয় বিভিন্ন খাবার খাওয়ার মাধ্যমে। ভিটামিন বি ১২ আমাদের শরীরের মস্তিষ্ক এবং স্নায়ুতন্ত্রের কর্মক্ষমতা আম বজায় রাখতে সাহায্য করে। মানবদেহের ডিএনএ তৈরি করতে এবং বজায় রাখতে সাহায্য করে থাকে। সেই সাথে আমাদের শরীরের লোহিত রক্ত কণিকা তৈরি করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আর এজন্যই আমাদের ভিটামিন বি১২ বিভিন্ন খাবার গ্রহণের মাধ্যমে গ্রহণ করতে হয়। আমাদের শরীরের জন্য এই গুরুত্বপূর্ণ ভিটামিন টি শরীরের অভাব রয়েছে কিনা সেটি কিভাবে বুঝব এটি অনেকেই আমরা জানিনা। আমাদের এই পোস্টটিতে জানব ভিটামিন এর অভাবে কি কি লক্ষণ দেখা দিতে পারে।

যেভাবে বুঝবেন ভিটামিন বি১২ এর অভাব
যেভাবে বুঝবেন ভিটামিন বি১২ এর অভাব

যারা ঝুঁকিতে রয়েছেন

সাধারণত বয়স বাড়ার সাথে সাথে ভিটামিন বি১২ এর অভাব ঝুঁকি বেড়ে যায়। আমরা অনেকে প্রায়ই গ্যাসের ওষুধ গ্রহণ করে থাকি এই গ্যাসের ওষুধ গ্রহণ করার কারণে আমাদের ভিটামিন বি ১২ এর অভাব হয়ে থাকে। আবার এদিকে যারা নিরামিষ ভোজী তাদের ভিটামিন বি ১২ এর ঘাটতি দেখা দিয়ে থাকে। আবার জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি যারা গ্রহণ করে থাকেন তারাও এই ঝুঁকিতে রয়েছেন। এছাড়াও যারা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত তাদেরও ভিটামিন বি ১২ এর অভাব দেখা দিতে পারে।

ভিটামিন বি১২ এর অভাবে লক্ষণ:

রক্ত শূন্যতা:

রক্তস্বল্পতা এমন একটি আমাদের শরীরের অবস্থা যার শরীরের পর্যাপ্ত লোহিত রক্তকণিকা থাকে না বা তৈরি হতে পারেনা। এই লোহিত রক্ত কণিকা আমাদের শরীরের অক্সিজেন পৌঁছাতে সাহায্য করে থাকে। যখন আমাদের শরীরে এই লোহিত রক্ত পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকবে না তখন সঠিকভাবে আমাদের অক্সিজেন পৌঁছাতে পারবেনা। যে কারণে আমাদের শরীরের ক্লান্তি, দুর্বলতা এবং অন্যান্য লক্ষণ দেখা দেবে।

রক্তশূন্যতার লক্ষণ-
  • দুর্বলতা
  • ত্বক ফ্যাকাসে হওয়া
  • মাথা ঘোরা
  • ক্লান্তি অনুভব করা
  • হাত-পা ঠান্ডা হয়ে যাওয়া
  • বুক ব্যথা হওয়া
  • মাথাব্যথা করা

ক্লান্তিবোধ:

ভিটামিন বি১২ প্রধান কাজ হল আমাদের শরীরের লোহিত রক্ত কণিকা তৈরি করা। আর আমাদের শরীরে লোহিত রক্ত কণিকা গুলো কাজ করার সময় আমাদের শরীরের কৃষি সহ সমস্ত শরীরের অক্সিজেন বহন করে থাকে। আমাদের মানব দেহের ভিটামিন বি১২ এর অভাবে লোহিত রক্ত কণিকায় অক্সিজেন পরিবহনে সঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারে না এ ক্ষেত্রে আমাদের শরীর ক্লান্তি হয়ে থাকে।

জিব্বায় ঘা হওয়া:

ভিটামিন বি১২ এর অভাবে আমাদের জিব্বায় ঘা হয়ে থাকে। জিব্বায় ঘা হওয়ার ফলে আমাদের স্বাভাবিক খাবার স্বাদ পাই না সেইসাথে ঝাল জাতীয় কোন খাবার গ্রহণ করা যায় না। অনেক সময় দেখা যায় আমাদের জিব্বা লাল বর্ণের আকার ধারণ করে।

ভুলে যাওয়ার স্বভাব

সাধারণত ভিটামিন বি১২ এর অভাবে ভুলে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। যাহা প্রাথমিক অবস্থায় এর চিকিৎসা না করালে পরবর্তী সময়ে দীর্ঘমেয়াদী সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে।

যেভাবেই ভিটামিন বি১২ গ্রহণ করবেন

আমাদের নিয়মিত খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তন আনতে হবে সেজন্য আমাদের সুষম খাদ্য গ্রহণ করতে হবে। আমাদের প্রত্যেকদিন নিয়মিত খাবারে প্রাণীজ উপাদান যেমন কলিজা, মাংস, ডিম, দুধ ইত্যাদি খাবার রাখতে হবে। নিয়মিত আপনাকে সামুদ্রিক মাছ খেতে হবে এতে করে আপনার ভিটামিন বি১২ এর অভাব পূরণ হবে। এক্ষেত্রে মাংসই হচ্ছে ভিটামিন বি ১২ এর সবথেকে ভালো উৎসব হতে পারে। এছাড়া আপনি বাজারে অনেক খাবার পাবেন যেখানে ভিটামিন বি১২ মিশ্রিত খাবার পাওয়া যায়। প্রয়োজনে আপনি ভিটামিন বি১২ সাপ্লিমেন্টারি ঔষধ ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top